চিকিৎসা সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে শিশুদের এবং প্রাপ্তবয়স্কদের একই ভাবে বিবেচনা করা যায় না। কারণ, শিশুদের শরীর প্রাপ্তবয়স্কদের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। তাই তাদের বিশেষ যত্ন এবং একটি নির্দিষ্ট পদ্ধতির প্রয়োজন। এটি শিশুদের মধ্যে হাড় সংক্রান্ত সমস্যাগুলির জন্য বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ, যার মধ্যে রয়েছে জন্মগত ত্রুটি (যেমন ক্লাবফুট, স্থানচ্যুত হিপ জয়েন্ট ইত্যাদি), আঘাত এবং ট্রমা। ক্রমবর্ধমান হাড় ও অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের কথা মাথায় রেখে যে-কোনও চিকিৎসা প্রদান করতে হয়। এই বিশেষ যত্ন একজন পেডিয়াট্রিক অর্থোপেডিশিয়ান দ্বারা প্রদান করা হয়। এমনই একজন হলেন ডা. আর শঙ্কর। অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে, হাড় সংক্রান্ত চিকিৎসা প্রদানের জন্য, চেন্নাইয়ের  অ্যাপোলো চিলড্রেনস হাসপাতাল-এর ‘পেডিয়াট্রিক অর্থো ক্লিনিক’-এ নিযুক্ত রয়েছেন এই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক।

Paediatric Orthopaedician
Dr. R Shankar

চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো চিলড্রেনস হাসপাতালের পক্ষ থেকে, সম্প্রতি কলকাতায় আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে শিশুদের হাড় এবং মেরুদণ্ডের ব্যাধি সংক্রান্ত চিকিৎসার বিষয়ে পরামর্শ দিলেন ডা. আর শঙ্কর। তিনি যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড এবং ভারতের মতো বিভিন্ন দেশে এই বিষয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন এবং সাফল্যের সঙ্গে চিকিৎসা করছেন। কলকাতায় অ্যাপোলো হাসপাতালের পেডিয়াট্রিক অর্থো ক্লিনিকে শিশুদের যে-সব সমস্যার চিকিৎসাগত পরামর্শ প্রদান করা হবে তা হল— বোন অ্যান্ড স্পাইন ডিসঅর্ডার, ক্লাবফুট, স্পাইন ডিসঅর্ডার, লিম্ব লেংথ ডিসঅর্ডার, ফ্র্যাকচার-ট্রমা, বোন টিউমার ও ইনফেকশন। এই প্রসঙ্গে ডা. আর শঙ্কর ক্লাবফুট বা বাঁকা পায়ের পাতা এবং মেরুদণ্ডের অসুখের বিষয়ে আলোকপাত করলেন সম্প্রতি।

ক্লাবফুট: এটি জন্মগত ত্রুটি। এক্ষেত্রে পা বেঁকে মুগুরের মতো রূপ নেয়। এই অসুখে আক্রান্ত শিশুদের শারীরিক গঠন ও বিকাশ ব্যাহত হয়। কেন এই অসুখ হয়, তার কোনও সুনির্দষ্ট কারণ নেই। তবে কন্যাসন্তানের তুলনায় পুত্রসন্তানদের বেশি আক্রান্ত হতে দেখা যায় এই অসুখে। অবশ্য,মা-বাবা যদি ধূমপান কিংবা মদ্যপানে বেশি আসক্ত থাকেন সন্তানের জন্ম দেওয়ার আগে এবং গর্ভাবস্থায় যদি মায়ের এমিনিওটিক তরলের অভাব থাকে, তাহলে শিশু ক্লাবফুট-এর শিকার হতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সার্জারির মাধ্যমেই এই অসুখের চিকিৎসা করা হয়। ডা. আর শঙ্কর আরও জানিয়েছেন, গর্ভাবস্থায় এবং জন্মের পর ক্লাবফুটে আক্রান্ত শিশুদের জন্য একটি বিশেষ ক্লিনিক খোলা হয়েছে অ্যাপোলো হাসপাতালে। এই ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ক্লাবফুটের শিশুদের সঙ্গে তাদের পিতামাতার সাক্ষাতের সুযোগ রয়েছে। এখানে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়।

মেরুদণ্ডের ব্যাধি: শিশুদের মধ্যে স্কোলিওসিস সহ মেরুদণ্ডের ব্যাধিগুলিকে চিহ্নিত করে সঠিক ভাবে চিকিৎসা করা হয়। প্রথমদিকে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে, সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া উচিত এবং শিশুদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে আসার সর্বোত্তম সুযোগ করে দেওয়া উচিত। অস্থিসংক্রান্ত সমস্যার চিকিৎসার জন্য এখন কলকাতার  অ্যাপোলো হাসপাতালে চালু হল ‘পেডিয়াট্রিক অর্থো ক্লিনিক’। এই ক্লিনিকে শিশুদের অস্থিবিষয়ক যাবতীয় সমস্যার বিশেষ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই ক্লিনিকের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন অ্যাপোলো চিল্ড্রেন্স হসপিটালস চেন্নাইয়ের পেডিয়াট্রিক অর্থোপেডিসিয়ান ডা. আর শঙ্কর। যেসব কমবয়সী রোগীদের উপরোক্ত সমস্যা রয়েছে তাদের এই ক্লিনিক থেকে ‘এক্সপার্ট অ্যাডভাইস’ দেওয়া হবে, ফলে তাদের আর চেন্নাইয়ে যেতে হবে না। কলকাতায় অ্যাপোলো হসপিটালস-এর পেডিয়াট্রিক অর্থো ক্লিনিক খোলা থাকবে প্রতিমাসের তৃতীয় শনিবার বলে জানানো হয়েছে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।

Tags:
COMMENT