শাড়ি হোক বা কুর্তি, পোশাকের স্বাচ্ছন্দ্যই আসল। এছাড়াও প্রত্যেক মানুষের ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী তার নিজস্ব স্টাইল বা ধরন তৈরি হয়ে যায়। আধুনিক Fashion ট্রেনডও ব্যক্তির পোশাক নির্বাচন কে অনেকটাই প্রভাবিত করে। শুধু টিনএজাররাই নন, কুর্তির কল্লোলিত ফ্যাশনে আজকাল গা ভাসিয়েছেন নানা বয়সের নারী। সুন্দর সুন্দর ডিজাইনে উজ্জ্বল, এমন কমফর্টেবল পোশাক তাই ফ্যাশন দুনিয়ায় এখন দারুণ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে কুর্তি। ক্যাজুয়াল স্মার্ট লুকের জন্য কিংবা চটজলদি তৈরি হয়ে বেরোনোর জন্য, কুর্তির মতো এমন বিকল্প আর নেই। জিনস কিংবা লেগিংস, যে-কোনও লোয়ারের সঙ্গেই মানানসই।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এর জনপ্রিয়তার বহর দেখে, ডিজাইনাররা কুর্তিতেও নানারকম ভ্যারাইটি আনছেন। স্টাইল, কালার্স, ডিজাইন পৃথক হওয়ার ফলে সাজেও আসে বৈচিত্র্য। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী নানা টেক্সচারের ও নানা মেটিরিয়ালের কুর্তি এখন বাজারে সুলভ দামে পাওয়া যায়।

কটন কুর্তি

আমাদের গ্রীষ্মপ্রধান দেশে কটন কুর্তির কদরই আলাদা। গরমের দেশ বলে এখানে Fashion-এ ম্যাক্সিমাম চাহিদা সুতির কুর্তার। সুতির উপর চিকনের কাজ দেখতে খুব সোবার লাগে। মিহি সুতোর এমব্রয়ডারি নকশা তোলা কুর্তিও এখন দারুণ জনপ্রিয়। কিছু কিছু কুর্তিতে লেসের কাজও করা থাকে। উৎসবের সাজের জন্য, কিংবা বছরের নানা সামাজিক অনুষ্ঠানে পরার জন্য, জরির কাজ করা সুতির কুর্তি, অনেকেই শখ করে কিনছেন আজকাল। গলায় ও নীচের বর্ডার হিসাবে প্যাচওয়ার্ক করা কুর্তিগুলো, দেখতে খুব সুন্দর লাগে। ইয়োকে বিডস ওয়ার্ক করা থাকলে, কুর্তিতে একটা ট্র্যাডিশনাল লুক আসে। এগুলি জিনস-এর উপর পরলে বেশ একটা ফিউশন লুক দেওয়া যায়। দেড়শো থেকে সাড়ে চারশো টাকার মধ্যে, দারুণ সুন্দর সুন্দর কটন কুর্তি পেতে পারেন।

সিল্ক কুর্তি

পার্টিওয়্যার হিসাবে সিল্ক কুর্তির তুলনা নেই। প্রিন্টেড সিল্ক এখন ফ্যাশনের শীর্ষে। সিল্কের কুর্তিতে হ্যান্ড এমব্রয়ডারি, জরদৌসি, সিকুইন্স, মিরর ওয়ার্ক করা হচ্ছে উজ্জ্বল লুক দেওয়ার জন্য। এর ফলে কুর্তিগুলি খুব ঝলমলে দেখতেও লাগছে। শর্ট, মিডিয়াম বা লং, যে-লেংথ-এই পরুন না কেন, পোশাকটি পরলে দারুণ স্মার্ট লাগবে। হারেম প্যান্টস, পাতিয়ালা সালোয়ার, লেগিংস বা যে-কোনও ট্রাউজারের সঙ্গে চট করে গলিয়ে নিতে পারেন এই সব ট্র্যাডিশনাল নকশার সিল্ক কুর্তি। এগুলির দাম ছ’শো থেকে দু’হাজার টাকার ভিতর।

ডেনিম কুর্তি

শীতে এই ভারী ধরনের কুর্তিই আরামদায়ক হয়। তাই শীত ঋতুতে বেছে নিন ডেনিমের প্লেন, বা কাজ করা কুর্তি। ব্লু ছাড়াও এখন নানা রঙে মেলে এই ধরনের কুর্তি। দাম দুশো থেকে পাঁচশো টাকার মধ্যে।

ক্রেপ কুর্তি

যে-কোনও ঋতুতেই দারুণ কমফর্টেবল ক্রেপ কুর্তি। এছাড়া কাচা-ধোওয়া সহজ, নেই আয়রনের ঝামেলা, তাই এগুলি কলেজ-কন্যাদের দারুণ পছন্দের পোশাক। ক্রিস্টাল বা বিডস লাগানো এই সব কুর্তি যেমন ক্যাজুয়াল, তেমনই স্মার্ট। দামও নাগালের মধ্যেই। চারশো থেকে হাজার টাকার রেঞ্জে পাবেন এই কুর্তি।

লেজার কুর্তি

ট্রান্সপ্যারেন্ট মেটিরিয়ালের এই কুর্তি একটু হট লুকের জন্য আদর্শ। হালফিল হিন্দি ছবিতে বহু নায়িকার অঙ্গেই শোভা পাচ্ছে এই ধরনের কুর্তি। আপনিও চাইলে একটু সাহসী হতেই পারেন, না হলে ইনারের সঙ্গে পরুন। মিরর ওয়ার্ক বা সিকুইন্সে সাজানো এই ধরনের কুর্তির দাম পড়বে পাঁচশো থেকে আড়াই হাজার টাকার মধ্যে।

খাদি কুর্তি

সিম্পল ও সোবার লুক যাদের পছন্দ, তাদের জন্য আদর্শ খাদির কুর্তি, এগুলি দারুণ টেকসইও হয়। উডেন বিডস বা তুলসী বিডস ও বোতাম লাগানো এই কুর্তি, জিনস-এর সঙ্গেই মানায় বেশি। দাম তিনশো থেকে পাঁচশো টাকার মতো।

কুর্তির নকশাই শুধু নয়, এর নেক কাটিং-এর উপরেও আপনার স্টাইলের অনেকটাই নির্ভর করে। হল্টারনেক উইথ ব্যাকলেস, সুইট হার্ট, রাউন্ড নেক–যাই পরুন, আপনার ফিগার আর হাইটের ব্যাপারটা শুধু মাথায় রাখবেন। স্লিভলেস, হাফস্লিভ, ফুলস্লিভ বা মেগাস্লিভ, যে-কোনও কুর্তিই পছন্দ অনুযায়ী বাছতে পারেন। প্লেন বটম ছাড়াও বেলুন শেপ, স্ট্রেট বা এ-লাইন কুর্তি এখন বাজারে মেলে। নিউমার্কেট থেকে গড়িয়াহাট, কিংবা নামিদামি শপিংমল – যে-কোনও জায়গাতেই পেতে পারেন এই সব রংবেরঙের কুর্তি।

 

 

 

Tags:
COMMENT