আমি বিবাহিতা। ১০ বছর হয়েছে আমার বিয়ের। ৮ বছরের ছেলে এবং ২ বছরের মেয়ে আছে। প্রথম দিকে স্বামী আমার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করলেও সন্তানদের জন্মের কিছুদিন পর থেকেই স্বামী প্রায় দিনই আমার সঙ্গে ঝগড়া করেন, আমাকে মারধর করেন। রাতভর মাঝেমধ্যেই বাড়ির বাইরে রাত কাটিয়ে আসেন। এমনও হয় ঝগড়া করে ১৫-১৬ দিন বাড়ির বাইরে কাটিয়ে আসেন। আমি কিছুই জানতে পারি না যে তিনি কোথায় ছিলেন এতদিন। আমি খুব অশান্তিতে আছি। অনেক রকম চেষ্টা করেছি ওনার মন জয় করতে কিন্তু সফল হইনি। কী করলে রোজকার ঝামেলা থেকে আমি নিষ্কৃতি পাব?

বিয়ের ১০টা বছর আপনারা পার করে এসেছেন। ১০ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর আপনার মনে হচ্ছে এই বিয়ে থেকে নিষ্কৃতি চান। এতদিনে আপনাদের পছন্দ-অপছন্দ উভয়েই জেনে গেছেন। আপনাকে ভাবতে হবে বিয়ের প্রথম দিকে আপনার স্বামী যখন কখনও কিছু নিয়ে অশান্তি করেননি তাহলে হঠাৎ এমন কী ঘটল যাতে তাঁর ব্যবহার এতটা পালটে গেল। কী নিয়ে মূলত আপনাদের মধ্যে ঝগড়া সেটা জানাননি। খেয়াল রাখলেই বুঝতে পারবেন, আপনার কোন কাজ স্বামী পছন্দ করছেন না এবং কোন কারণের জন্য ঝগড়া করছেন। কেনই বা ঝগড়া এতদূর গড়াচ্ছে যে সেটা মারামারির পর্যায়ে চলে যাচ্ছে? চেষ্টা করলেই কারণটা বুঝতে পারবেন। ভালো হয় যদি ঝগড়ার পরিস্থিতিটাই না জন্মায়। বিনা কারণে নিশ্চয়ই ঝগড়া হয় না। এটাও মনে রাখবেন যে বাড়ির ঝগড়ার খারাপ প্রভাব বাড়ির বাচ্চাদের উপরও পড়ে।

আপনার স্বামী যখন শান্ত এবং ভালো মুডে থাকবেন তখন আপনিও তাকে বোঝান। বিয়ে মানে দুপক্ষেরই অ্যাডজাস্টমেন্ট। নিজেদের অহংকার ছেড়ে, একে অপরের চরিত্রের দুর্বলতা না খুঁজে, বন্ধুত্বের মনোভাব রাখাটা একান্ত কাম্য। বাড়িতে শান্তি থাকলে স্বামীও বাড়ির বাইরে গিয়ে থাকবেন না। ভালোবেসে স্বামীকে বোঝান যে ওনারও সংসারের প্রতি কিছু দায়িত্ব রয়েছে।

 

Tags:
COMMENT