শ্রীতমার বাড়িতে রাতে আড্ডা আর খাওয়াদাওয়ার প্ল্যানিং বন্ধুবান্ধবদের। সবাই অবশ্য বলেছিল বাইরে থেকে খাবার আনানো হোক কিন্তু শ্রীতমাই বাধ সেধেছে।উৎসবের সময়টায় রেস্তোরাঁয় এত বেশি ভিড় থাকে যত্ন নিয়ে খাবার বানানোর সুযোগই থাকে না। বাড়ির খাবার তার চাইতে ভালো। এখানে শ্রীতমা একাই থাকে চাকরির খাতিরে একটা ফ্ল্যাট ভাড়া করে। বাড়িতে মা থাকলে পোলাও মাংসের আয়োজন হতো নিঃসন্দেহে কিন্তু শ্রীতমার একার পক্ষে করা অতটা সম্ভব নয়। তবে কী বানাবে বন্ধুদের জন্য তার একটা মোটামুটি ছক কষে রেখেছে ও। অরূপই জিগ্যেস করছিল, ‘তোর প্ল্যান টা কী রে?’

শ্রীর উত্তর, ‘একটু অন্য রকম খাবার বানাবো বুঝলি, আমাদের এজ গ্রুপে সবাই এটা পছন্দ করবে। আগের দিন তৈরি করে ফ্রিজেও রেখে দেওয়া যাবে, সবাই এলে ভেজে দিলেই চলবে। আর তার সঙ্গে টুকটাক তো থাকবেই। আমার প্ল্যান হল চিকেন আলা কিভ বানানো।’

‘ওরে বাবা, সেটা বানাবি কী করে, বিদেশি একটা রান্না।’

‘হ্যা, ঠিকই বলেছিস। এটা বিদেশের জনপ্রিয় খাবার। ঊনিশ শতকে রাশিয়াতে চিকেন আলা কিভ খুবই জনপ্রিয় হয় পরে অবশ্য এক ফ্রেঞ্চ শেফ-এর হাত ধরে এই পদটি সারা বিশ্বে জনপ্রিয়তা লাভ করে। ইউক্রেন, ফ্রান্স, রাশিয়া সকলেরই দাবি যে তারাই এই পদটির আবষ্কারক।’

‘রেসিপিটা আমায় একটু বলবি? তাহলে আমিও বাড়িতে ট্রাই করতে পারি। মা-বাবা খুব পছন্দ করবেন। রেস্তোরাঁ ছাড়া তো এসব খাওয়া হয় না।’

‘ঠিক আছে, লিখে নে। রেসিপিটি রইল সকল দর্শক বন্ধুদের জন্যও।’

Chicken ala kiev  বানাতে যা যা লাগবে – এটি ৪ জনের জন্য

উপকরণ: ৪টি চিকেন ব্রেস্ট, ভাজার জন্য ২ কাপ রিফাইন্ড অয়েল, ৪টি ডিম, ১ কাপ ময়দা, পরিমাণমতো বিস্কুটের গুঁড়ো, ২ কাপ লবণযুক্ত মাখন, ৪ টেবিল চামচ রসুনকুচি, ২ চা চামচ রেড চিলি ফ্লেক্স, স্বাদের জন্য গোলমরিচ পাউডার, ১ কাপ পার্সলেপাতা কুচোনো, ১ কাপ মোজারেলা চিজ গ্রেট করে নেওয়া।

প্রণালী: প্রথমে একটি পাত্রে মাখন, কুচোনো পার্সলে, চিলি ফ্লেক্স, রসুনকুচি একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে ফর্ক-এর সাহায্যে খুব ভালো করে মিশ্রণটি নাড়িয়ে নিন। এবার পাত্রটি ফ্রিজে ১০ মিনিটের জন্য রাখুন, যাতে মাখন একটু শক্ত হয়ে যায়। চিকেন ব্রেস্টগুলো ধারালো ছুরি দিয়ে হরাইজেন্টালি কাটুন এবং একটা পাশ লেগে থাকতে দিন। ছুরির উলটো দিকের বাঁট দিয়ে ব্রেস্ট পিস-টাকে ঠুকে ঠুকে ফ্ল্যাট আকার দিন, যাতে সেটা বেশ খানিকটা ছড়িয়ে যায়। বাকি ৩টি ব্রেস্ট পিসও একই পদ্ধতিতে সমান ভাবে ফ্ল্যাটেন করে নিন। এগুলির উপর সামান্য নুন এবং গোলমরিচ ছড়িয়ে দিন। খেয়াল রাখবেন মাখনেও কিন্তু নুন আছে।

ফ্রিজ থেকে মাখন এবং হার্বস-এর মিশ্রণটি বার করে ২ থেকে আড়াই টেবিল চামচ ভর্তি মাখন নিয়ে এক একটা চিকেন ব্রেস্ট পিসের মধ্যে রাখুন। এর উপর ২ টেবিল চামচ করে মোজারেলা চিজ ছড়িয়ে দিন এবং খুব টাইট করে পুরো ব্রেস্টপিস-টাকে একটা বোলের আকার দিন, যাতে কোনওভাবেই মাখন বা চিজ বাইরে বেরোতে না পারে। ট্রে-তে করে ১৫ মিনিটের জন্য আবার ফ্রিজে রাখুন। ডিম ভালো করে ফেটিয়ে রাখুন।

ফ্রিজ থেকে ১৫ মিনিট পর রোলগুলো বার করে প্রথমে ময়দা দিয়ে ভালো করে কোট করে নিন। এবার ফেটানো ডিমে চুবিয়ে ব্রেড ক্রাম্বস (বিস্কুটের গুঁড়ো) ভালো করে চারিয়ে নিন। পুরো পদ্ধতিটি দ্বিতীয়বার আবার করুন। এতে নিশ্চিত হবে তেলে দিলে এগুলি ফেটে যাবে না। এবার এগুলো ফ্রিজে আধঘন্টা ফয়েল জড়িয়ে রেখে দিন। তেল ভালো করে গরম করে মিডিয়াম আঁচে সময় নিয়ে মুচমুচে করে ভাজুন। ক্রিমি ম্যাশড পোট্যাটো এবং সেদ্ধ সবজির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

 

Tags:
COMMENT