আমার ত্বক খুব রুক্ষ এবং একই সঙ্গে অয়েলিও। শীতে ত্বক খুব রুক্ষ হয়ে পড়ে আবার গরমে তেল চিপচিপে হয়ে যায়। কী করলে ত্বক রুক্ষ এবং তৈলাক্ত কোনওটাই হবে না? আমার এই Personal problem-এর সমাধান কী?

আপনার ত্বকের ধরন সংমিশ্রিত বা কম্বিনেশন ত্বকের উদাহরণ। এর অর্থ হল ত্বকের কিছু অংশ শুষ্ক ও কিছু অংশ তৈলাক্ত। এ ধরনের ত্বক যাদের টি-জোনটি অর্থাৎ নাক, থুতনি এবং কপালের অংশটি তৈলাক্ত হয় কিন্তু গাল এবং চোয়ালের অংশটি শুষ্ক হয়। এই ধরনের ত্বকের জন্য পুরো ক্রিমভিত্তিক ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা যায় না। আবার এমন কিছুও বেছে নিতে পারবেন না যা আপনার ত্বককে ফ্ল্যাকি করে তুলবে।

এখন শীতকাল আসন্ন প্রায় সুতরাং এসময় ত্বক রুক্ষ হয়ে পড়াটাই স্বাভাবিক। গরমে আবার ত্বক অত্যধিক তৈলাক্ত হয়ে পড়ে। আপনার ত্বকের যে-রকম বর্ণনা দিয়েছেন তাতে আপনাকে জানতে হবে যে সংমিশ্রিত ত্বকের ক্ষেত্রে টি-জোন অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়। অথচ মুখের অন্যান্য অংশ শুষ্ক থাকে। এর জন্য আপনাকে ত্বকের আলাদা আলাদা জায়গায় বিশেষ বিশেষ প্রোডাক্টস ব্যবহার করা উচিত। মুখ ধোবার সময় টি-জোন-এর জন্য ডিপ পোর ক্লিনজার ব্যবহার করুন। টি-জোন পরিষ্কার করার জন্য স্যালিসিলিক অ্যাসিড-যুক্ত ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারেন। এটি কপাল এবং নাকের উপর খুব ভালো প্রভাব ফেলবে। গাল এবং জ-লাইনের জন্য ফেনা ছাড়া ক্লিনজার ব্যবহার করুন। আপনার ত্বক ময়েশ্চারাইজ করাও খুব দরকার। দিনের বেলা হালকা ময়েশ্চারাইজার লাগান এবং রাত্রে জেলযুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এছাড়াও বিশেষ করে ভিটামিন সি-যুক্ত সিরাম ব্যবহার করুন সারাদিনে অন্তত তিন-চারবার। জেলভিত্তিক পিল অফ ক্রিমও আপনার ত্বকের জন্য আদর্শ। এগুলি মুখের ত্বকের শুষ্ক ও তৈলাক্ত দিকের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। একটা কথা সবসময় খেয়াল রাখবেন যে শীতকালে রাতের বেলা ত্বকে খুব সামান্যই পণ্য ব্যবহার করা উচিত।

 

 

 

Tags:
COMMENT